ইউটিউব থেকে আয় করার উপায় – (সেরা ৫ টি সহজ পদ্ধতি)

আপনি যদি ইউটিউব থেকে আয় করার কথা ভাবছেন তাহলে আপনি সহজেই ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করবেন এই বিষয়ে আমি আজকে কথা বলব।

ইউটিউব থেকে আয়
ইউটিউব থেকে টাকা আয়

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম আপনার জন্য সহজ এবং খুবই লাভজনক উপায় হতে পারে। যদি আপনি সঠিকভাবে কাজ করতে পারেন। তাহলে ইউটিউবে আপনি অবশ্যই সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

অনেক ইউটিউবার রয়েছেন যারা ঘরে বসে শুধুমাত্র ইউটিউব চ্যানেল চালিয়ে ইউটিউব থেকে নাকি অনেক টাকা ইনকাম করছেন। যারা প্রফেশনালভাবে ইউটিউবার এবং যারা প্রফেশনালভাবে ইউটিউবিং করছেন তারা প্রতি মাসে অনেক টাকা আয় করছেন এবং এর পরিমাণ হাজার থেকে লক্ষ লক্ষ পর্যন্ত।

আপনিও যদি তাদের মত কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করবেন এ বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন তাহলে আমার পুরো লিখাটি পড়ার চালিয়ে যান।

ইউটিউব থেকে আয় করার সহজ উপায় সঠিকভাবে আপনাদের জানিয়ে দিব।

ইউটিউবে কিভাবে সফল হতে পারবেন ?

আপনি হয়তো জানেন যে ইউটিউবে প্রতিদিন হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ ভিডিও আপলোড আছে। এই ভিডিওগুলো আপনার এবং আমার মত মানুষ প্রতিদিন আপলোড করছে।

তাহলে নিশ্চয়ই আপনি বুঝতে পারছেন সেখানে কম্পিটিশন (Competition) কেমন ঠিক সেরকম আপনি যে বিষয়ে ভিডিও আপলোড করবেন কিংবা করতে চাচ্ছেন সেই বিষয়ে অনেক আগে থেকেই অনেক ভিডিও অলরেডি আপলোড করা হয়েছে।

সুতরাং অনেক কম্পিটিশন (Competition) এবং কম্পিটিটর ও অনেক এইসব কম্পিউটারের উপরে আপনার ভিডিও গেম নিয়ে আসতে চাইলে অথবা রেংক করাতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে হার্ড ওয়ার্ক করতে হবে।

আর যদি আপনার ভিডিওতে ভিউ না আসে তাহলে ইনকাম কিভাবে করবেন সুতরাং এটি স্পষ্ট যে ইউটিউবে সফল হতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে সঠিকভাবে কাজ করতে হবে।

ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় ?

আপনি ইউটিউব থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

যেমন,

ইউটিউব থেকে টাকা আয় সবচেয়ে সহজ কয়েকটি উপায় হল

  • গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয়়।
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা আয়।
  • নিজের প্রোডাক্ট বা পণ্য বিক্রি করে টাকা আয়।
  • ডোনেশন
  • স্পন্সরশীপ এর মাধ্যমে আয়।

গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইউটিউব থেকে আয়

আপনি হয়তো ইউটিউবে কোন ভিডিও দেখার সময় তাতে বিজ্ঞাপন দেখেছেন। ভিডিও চালু করলে কিছু সময় পর পর কতগুলো বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

এটি হলো গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন আর এর মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেলের মালিক টাকা আয় করে থাকেন।

ইউটিউব চ্যানেল এর মালিকদের গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট রয়েছে। সেই একাউন্টে ইউটিউব ভিডিও তে ভিউ এবং বিজ্ঞাপনে ক্লিক হওয়ার বিনিময়ে গুগল এডসেন্স একাউন্টে ডলার জমা হয়ে থাকে।

অর্থাৎ ভিডিওতে যত বেশি ভিউ এবং বিজ্ঞাপনে যত বেশি ক্লিক হবে গুগল এডসেন্স একাউন্টে ততবেশি ডলার জমা হতে থাকবে।

একটি ইউটিউব ভিডিওতে প্রতি 1000 ভিউ এর জন্য 2 থেকে 10 কিংবা 15 ডলার পর্যন্ত আয় হতে পারে।

ইউটিউব ভিডিও থেকে আয় করার একদম সহজ কাজ হল,

যদি আপনার একটি ভিডিও একবার জনপ্রিয় হয়ে যায় তাহলে সেটি প্রত্যেকদিন ভিউ হতে থাকবে এবং তার জন্য আপনার টাকা ইনকাম হতেই থাকবে।

আর আপনি যদি দিন দিন আরো নতুন নতুন ভিডিও আপলোড করতে থাকেন, যেগুলো মানুষ সার্চ করে দেখতে চায় তাহলে আপনার দিন দিন ইনকাম বাড়তেই থাকবে।

এর কারণ হলো পুরনো ভিডিও থেকে আপনার ইনকাম হতে থাকবে এবং তার সাথে নতুন নতুন ভিডিও গুলোতে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনার ইনকাম হতে থাকবে।

ইউটিউব ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য আপনাকে যে সব কাজ করতে হবে,

  • একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হবে।
  • চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে হবে।
  • চ্যানেলে মনিটাইজেশন চালু করতে হবে।

মনিটাইজেশন অন করার পর আপনার চ্যানেলের বিজ্ঞাপন দেখানো শুরু হবে এবং আপনি আয় করতে পারবেন।

তবে কথাগুলো অনেক সহজে বলা গেলেও কাজ তেমন সহজ নয় অনেকে মনিটাইজেশন পাওয়ার জন্য আপনাকে হার্ডওয়ার্ক করতেই হবে।

Google AdSense

ইউটিউব মনিটাইজেশন পাওয়ার শর্তগুলো হলো

  • আপনার চ্যানেল এ মোট 10 হাজার ভিউ থাকতে হবে।
  • 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম থাকতে হবে এবং
  • 1000 সাবস্ক্রাইবার থাকতে হবে

এই শর্তগুলো আপনাকে এক বছরের মধ্যেই পূরণ করতে হবে। তবেই আপনি চ্যানেলে মনিটাইজেশন অন করতে পারবেন।

এর জন্য আপনাকে যতগুলো ভিডিও আপলোড করার প্রয়োজন হয় ততগুলো আপলোড করতে হবে। ভালো মানের ভিডিও অবশ্যই তৈরি করতে হবে। কোন ধরনের কপিরাইট করা ভিডিও দিয়ে আপনি কখনোই সফল হতে পারবেন না।

আর একবার মনিটাইজ পেয়ে গেলে আপনার ইনকাম শুরু হবে এবং দিন দিন সেটা বাড়তেই থাকবে।

সুতরাং ইউটিউব থেকে টাকা আয়ের সবচেয়ে সহজ এবং সেরা উপায় হল গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন দেখিয়ে আয়।

ইউটিউব চ্যানলে মনিটাইজেশন কিভাবে চালু করবেন ?

মনিটাইজেশন অন করার জন্য আপনাকে চ্যানেল আইকন > ক্রিয়েটর স্টুডিও > চ্যানেল > মনিটাইজেশন এ যেতে হবে।

Channel icon >> Creator Studio >> Channel >> Monitization

মনিটাইজেশন চালু করার জন্য আপনাকে ৪ টি স্টেপ পূরণ করতে হবে, এগুলো আপনি নিজেই পূরণ করতে পারবেন। আপনাকে গুগল এডসেন্স একাউন্ট তৈরি করতে হবে। তারপর আপনার ইউটিউব চ্যানেলকে এডসেন্স একাউন্টের সাথে কানেক্ট করতে হবে।

মনিটাইজেশন এর জন্য এপ্লাই করার পর যদি আপনার চ্যানেল মনিটাইজেশন এর জন্য প্রস্তুত থাকে, তাহলে কিছুদিনের মধ্যেই আপনার এডসেন্স একাউন্ট একটিভ হয়ে যাবে এবং আপনি আপনার চ্যানেলে ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন।

যতক্ষণ পর্যন্ত গুগল এডসেন্স একাউন্ট একটিভ না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আপনি বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন না।

আর আপনার চ্যানেলে মনিটাইজেশন অন হয়ে গেলে আপনার ইউটিউব থেকে টাকা আয় শুরু হবে।

ইউটিউব থেকে টাকা কিভাবে তুলবেন ?

আমি বলেছি, আপনার ইউটিউব চ্যানেলের গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেখানো হবে মনিটাইজেশন অন করার সময় আপনাকে এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হবে।

এডসেন্স একাউন্টে যখন 100 ডলার জমা হবে তখন তা ব্যাংক এর মাধ্যমে নিতে পারবেন।

যখন আপনার একাউন্টে 10 ডলার হবে তখন এডসেন্স আপনাকে আপনার পোস্ট অফিসে চিঠি পাঠিয়ে দেবে। সেই চিঠিতে পিন থাকবে এবং আপনাকে সেই পিন ভেরিফাই করে নিতে হবে। তারপর ব্যাংক একাউন্টের ডিটেইলস একাউন্টে যুক্ত করতে হবে।

এফিলিয়েট লিংক এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে আয়

এফিলিয়েট লিংক এর মাধ্যমে আয় হলো এরকম যে আপনাকে আগে কোন কোম্পানির সাথে চুক্তি করতে হবে এবং তাদের কোনো পণ্যের লিংক আপনাকে সংগ্রহ করে নিতে হবে অর্থাৎ আপনাকে ভিডিওর মাধ্যমে তারপর নদী বিক্রি করে দিতে হবে এজন্য পণ্যের লিংক ভিডিও ডেসক্রিপশন এ রাখতে হবে এরপর ভিডিওতে মাঝেমাঝে আপনাকে সেই পণ্যের বিষয়ে বলতে হব যদি সেখান থেকে কেউ পণ্য বা প্রোডাক্ট ডাকিনি তাহলে আপনি তার জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণে কমিশন পাবেন।

এফিলিয়েট লিংক এর মাধ্যমে আপনি এভাবেই ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

স্পন্সরশীপ এর মাধ্যমে হয়

যদি আপনার চ্যানেলে অনেক ভিউয়ার্স এবং ফ্যান আছে। তাহলে আপনি এই পদ্ধতির মাধ্যমে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

যেমন ধরুন, কোনো একটি কোম্পানি আপনাকে তাদের প্রসারের জন্য টাকা প্রদান করবে এবং আপনি এমন ভাবে ভিডিও তৈরি করবেন যাতে করে তাদের প্রচার হয়ে থাকে।

উদাহরণস্বরূপ, ধরুন আপনার টিভি চ্যানেল আছে। সেখানে বিজ্ঞাপন প্রচার করার জন্য কোন কোম্পানি আপনাকে অর্থ প্রদান করবে।

এভাবে আপনি ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে আপনার চ্যানেলে প্রচুর জনপ্রিয় হতে হবে এবং প্রচুর ভিউয়ারস থাকতে হবে।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *